আজ  সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪


জাতীয় গৃহায়নের প্লট জালিয়াতি মামলায় আসামিদের বিরুদ্ধে চার্জ গঠন

  আবু মুসা চৌধুরী   |   আপডেট: ১১:৩৪ পিএম, ২০২২-১১-১০    999

 

জাতীয় গৃহায়নের প্লট জালিয়াতি মামলায় আসামিদের বিরুদ্ধে চার্জ গঠন

চট্টগ্রাম জাতীয় গৃহায়নের প্লট জালিয়াতি ও আত্মসাতের মামলায় আসামিদের বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করা হয়েছে।

৯ নভেম্বর (বুধবার ) চট্টগ্রাম বিভাগীয় বিশেষ জজ আদালতের বিচারক মুন্সি আবদুল মজিদ এ আদেশ দেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দুদকের আইনজীবী এডভোকেট মো মুজিবুর রহমান চৌধুরী।

আসামিরা হলেন-চট্টগ্রাম জাতীয় গৃহায়নের সাবেক প্রশাসনিক কর্মকর্তা এম সাদেক হোসেন, মো. জানে আলম, মো. আজম খান ও শৈলেন চাকমা।

৯ নভেম্বর (বুধবার ) চার্জ গঠনের জন্য দিন ধার্য ছিলো। বিচারক উভয় পক্ষের আইনজীবীদের বক্তব্য শোনেন। আসামিরা তাদের আইনজীবীদের মাধ্যমে এ মামলা থেকে অব্যাহতি পাওয়ার জন্য ডিসচার্জের আবেদন করলেও তা খারিজ করে চার্জ গঠনের আদেশ দেন বিচারক।
আগামী তারিখ ২৯ জানুয়ারি সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য দিন ধার্য আছে।


আদালত সূত্রে জানা যায়, আসামিদের বিরুদ্ধে চট্টগ্রাম জাতীয় গৃহায়নের ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পূর্ব পাশ্বে ফিরোজশাহ হাউজিং এস্টেটের অধীনে ৯, ১০ ও ১১ নম্বর প্লট পরস্পর যোগসাজশে প্রতারণা, জালিয়াতি ও ক্ষমতার অপব্যবহারের মাধ্যমে আত্মসাৎ করার অভিযোগ আনা হয়। এ ধরনের অভিযোগের অপরাধের মাধ্যমে আত্মসাতকৃত টাকার পরিমাণ তের লাখ বাইশ হাজার পাঁচশত টাকা উল্লেখ রয়েছে মামলার অভিযোগ পত্রে।

আসামি এম সাদেক হোসেন, শৈলেন চাকমা ১৯৯৯ সালের ৩ আগস্ট থেকে ২০০৩ সাল পর্যন্ত চট্টগ্রাম জাতীয় গৃহায়নে কর্মরত থাকা অবস্থায় মো. জানে আলম, মো. আজম খান, আলহাজ নাজিম উদ্দিন ও আবুল কালাম আবুসহ অন্যান্য আসামিদের পরস্পরের যোগসাজশে দুর্নীতির মাধ্যমে জাল-জালিয়াতি ও ক্ষমতার অপব্যবহারের মাধ্যমে ৪০৯, ৪২০, ৪৬৭, ৪৬৮, ১০৯ ধারা এবং তৎসহ ১৯৪৭ সালের দুর্নীতি প্রতিরোধ দুই নম্বর আইনের ৫(২)ধারায় শাস্তিযোগ্য অপরাধ করেছেন।

আবেদনকারী আফছার উদ্দিন লিটনের অভিযোগের প্রেক্ষিতে আসামিদের বিরুদ্ধে জাতীয় গৃহায়নের প্লট বরাদ্দে দুর্নীতি-অনিয়ম ও জাল-জালিয়াতি প্রমাণ হওয়ায় ২০১৮ সালের ১৯ মার্চ দুদকের তদন্ত কর্মকর্তা মো. জাফর আহমেদ আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন।

আসামিরা চট্টগ্রাম জাতীয় গৃহায়নের কর্মকর্তাদের যোগসাজশে ভুয়া আবেদনকারী সাজিয়ে ভুয়া লিজ দলিল, রূপান্তরপত্র, হস্তান্তর পত্র, চুক্তিনামা ও আমমোক্তার দলিল সৃজন করে নিজেরাই সিল ছাপ্পর মেরে স্বাক্ষর জাল করে সরকারি সম্পত্তি বিক্রি করে উক্ত টাকা আত্মসাৎ করেছেন।
এ নিয়ে দুর্নীতি দমন কমিশনের ( দুদক) আইনজীবী মো. মুজিবুর রহমান চৌধুরী বলেন, আসামিরা চট্টগ্রাম জাতীয় গৃহায়ন কর্মকর্তাদের যোগসাজশে অস্তিত্বহীন, কাল্পনিক লুৎফন নাহার, মিন আরা বেগম ও মুরাদ খানের নামে ভুয়া ঠিকানা ব্যবহার করে ভুয়া আবেদনকারী সাজিয়ে বরাদ্দ পত্র লাভ করেন।
পরবর্তীতে চট্টগ্রাম জাতীয় গৃহায়নের কর্মকর্তা এম সাদেক হোসেন ও শৈলেন চাকমার যোগসাজশে আসামি মো. জানে আলম, মো. আজম খান এবং আলহাজ নাজিম উদ্দিন ভুয়া লিজ দলিল, রূপান্তর পত্র, হস্তান্তর পত্র ও পাওয়ার অব এটর্নি দলিল সৃজনের মাধ্যমে ভুয়া সিল ছাপ্পর-স্বাক্ষর করে নিজেরাই সরকারি সম্পত্তি আত্মসাৎ করেন।

এ মামলার পরবর্তী স্টেপ কী প্রসঙ্গে জানতে চাইলে দুদকের পিপি বলেন, আগামী তারিখ সাক্ষ্য গ্রহণের জন্য দিন ধার্য আছে। এ মামলার মূল অভিযোগকারী ও সংবাদদাতা মো. আফছার উদ্দিন লিটন ও দুদকের তিন তদন্ত কর্মকর্তাসহ অন্যান্যদের প্রতি সাক্ষ্য দেয়ার জন্য সমন জারি করা হবে।

আসামি মো. আজম খান চট্টগ্রাম বন্দরে সরকারি চাকরি করে সরকারি প্লট জাল-জালিয়াতি করে কীভাবে প্রসঙ্গে জানতে চাইলে সংবাদ দাতা আফছার উদ্দিন লিটনের আইনজীবী চৌধুরী মো. সাইফুল ইসলাম আজাদ বলেন, আসামি চট্টগ্রাম বন্দরে সরকারি চাকরি করেও সকল ভুয়া দলিল নিজের পরিচয় সম্পূর্ণ গোপন করেছেন। যা দুদক আইনে গুরুতর অপরাধ। দুদক চাইলে এ নিয়ে আরও একটি মামলা করতে পারে।

আসামিরা চট্টগ্রাম শহরের চিহ্নিত জাল বরাদ্দ পত্র ও জাল দলিল চক্রের সদস্য। জাল-জালিয়াতি করাই তাদের কাজ। আমি আশা করছি আদালত এ বিষয়ে ন্যায়বিচার নিশ্চিত করবেন।

এ মামলার চার্জ গঠন হতে এতো সময় লাগলো কেন প্রসঙ্গ জানতে চাইলে তিনি বলেন, আসামিরা তাদের আইনজীবীদের মাধ্যমে চল-চাতুরী করে অনেক কৌশল করেও বাঁচার চেষ্টা করেছিল কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি। আসামিরা ভেবেছিল এ মামলা থেকে তারা অব্যাহতি পাবেন—সে আশায় তারা বসেছিল। দুদকের আইনে আসামিদের অব্যাহতি পাওয়ার তেমন একটা সুযোগ নেই। যদি অব্যাহতি পেতো প্রশ্নবিদ্ধ হতো দুদক। প্রশ্নবিদ্ধ হতো আদালত। প্রশ্নবিদ্ধ হতো দুদকের চার্জশিট, তদন্ত রিপোর্ট ও মামলার এজাহার।

 

রিলেটেড নিউজ

তরুণ প্রকাশকদের অংশগ্রহণে তিনদিনব্যাপী ‌‌প্রশিক্ষণ কর্মশালার সনদপত্র বিতরণ অনুষ্ঠান সম্পন্ন

চট্টলার ডাক ডেস্ক: তরুণ প্রকাশকদের অংশগ্রহণে তিনদিনব্যাপী ‌‌'সৃজনশীল প্রকাশনা খাত: চ্যালেঞ্জ ও সম্ভাবনা' শীর্�...বিস্তারিত


মুসা (আ.) এর আমলে দীর্ঘদিন বৃষ্টি বন্ধ ছিলো!

মো. ইউছুফ চৌধুরী হযরত মুসা (আ.) এর আমলে দীর্ঘদিন যাবত বৃষ্টি বন্ধ ছিলো। তাঁর উম্মতরা তাঁর কাছে এসে বললো “ হে নবী, আল্�...বিস্তারিত


আল-আমিন হাসপাতাল (প্রা.) লিমিটেড

চট্টলার ডাক ডেস্ক: আল-আমিন হাসপাতাল (প্রা.) লিমিটেড ৮৩০, জাকির হোসেন রোড, একে খান মোড়, উত্তর পাহাড়তলী, চট্টগ্রাম। ...বিস্তারিত


চট্টগ্রামের একে খান মোড়ে রাজমহল রেস্তোরাঁ এন্ড বেকার্সের উদ্বোধন

চট্টলার ডাক ডেস্ক: নগরীর একে খান মোড়ে সুপার রাজমহল রেস্তোরাঁ এন্ড বেকার্সের শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠিত হয়েছ। সোমবার, ২৯ �...বিস্তারিত


আমি মহান মুক্তিযুদ্ধে ২ নং সেক্টরে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করেছি

আফছার উদ্দিন লিটন: অধ্যক্ষ শামসুদ্দিন আহমেদ। ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধে সক্রিয় অংশগ্রহণকারী একজন বীর মুক্তিযোদ্ধ...বিস্তারিত


ডিজিটাল বাংলাদেশের সুফল আমরা পদে পদে টের পাচ্ছি

আফছার উদ্দিন লিটন ও এলেন ভট্টাচার্য অনিক লায়ন একে জাহেদ চৌধুরী। চট্টগ্রামের নাজিরহাট পৌরসভার মেয়র। অত্যন্ত বিনয়ী এবং সাংস্কৃতিকবান্ধব এ�...বিস্তারিত